স্পিকার কেনার আগে কী কী জানা আবশ্যক - শওকত আলী জুনেল

Browse

Want to chat?

Whatsapp Us: 01755532345

Social

স্পিকার

স্পিকার কেনার আগে কী কী জানা আবশ্যক

স্পিকার

স্পিকার

আগের দিনের সিনেমায় দেখে থাকবেন, ছোট বেলায় হারিয়ে যাওয়া নায়ক-নায়িকারা তাদের স্বজনদের বিশেষ কোন গানের মাধ্যমে ফিরে পাচ্ছেন। বিষয়টা হয়তো এখন হাস্যকর লাগতে পারে। তবে একথাও ফেলে দেয়ার নয় যে, মানুষের মস্তিষ্কের সঙ্গে মিউজিকের গভীর একটা যোগাযোগ আছে। মিউজিক মানুষের মস্তিষ্ককে গভীরভাবে আন্দোলিত করে। কোন কোন ক্ষেত্রে গান শুনে আপনার অতীতে স্মৃতি মনে পড়েও যেতে পারে। অনেক সময়ে স্ট্রেস রিলিভ করতেও মিউজিক দারুন কার্যকর ভূমিকা পালন করে।

তবে এই মিউজিক-ই আপনার মেজাজ খিটখিটে করে দিতে পারে। এক্ষেত্রে আপনাকে গান শোনার মাধ্যম সম্পর্কেও সচেতন থাকা উচিৎ। শুধু গান শুনলেই স্ট্রেস রিলিভ হবে না, এজন্য আপনার স্পিকারটাও হতে হবে কমফোর্টেবল। এবার আসুন জেনে নেয়া যাক স্পিকার কেনার আগে কী কী বিষয় খেয়াল রাখবেন।

মাল্টিমিডিয়া কিংডমের চিফ অপারেশন অফিসার (সিওও) শওকত আলী জুনেল জানান, আমি প্রায় ১০ বছর স্পিকার বিপণনের সঙ্গে যুক্ত। স্পিকার অনেক ধরনের হয়। যেমন  ২:১, ৪:১, ৫:১ বা ৭:১ হয়ে থাকে। আবার কানেক্টিভিটির দিক থেকে ওয়্যার্ড ও ব্লু-টুথ সুবিধা সম্পন্ন প্রভৃতি। তাই আমার মতে, স্পিকার কিনতে চাইলে প্রথমে ঠিক করতে হবে আপনি কোন উৎস থেকে স্পিকারটা বাজাতে চান। আপনি যদি মোবাইল ফোন থেকে বাজাতে চান তাহলে ব্লু-টুথ সম্পন্ন স্পিকার নেয়াই উত্তম।

আবার অনেক স্পিকার আছে পেনড্রাইভ বা মেমরি কার্ড থেকে শব্দ বাজানো যায়, প্রয়োজন মনে করলে এই সুবিধাসহ স্পিকার কিনতে পারেন। শব্দ নিয়ন্ত্রণব্যবস্থা আছে কি না, সেটা অবশ্যই দেখে নেবেন।

কেনার সময় দেখবেন মোড়কের গায়ে স্পিকারের স্পেসিফিকেশন উল্লেখ করা আছে। ওয়াট, ফ্রিকোয়েন্সি, সিগন্যাল রেশিও, ইনপুট-আউটপুট ব্যবস্থা লেখা থাকে। এগুলোর অর্থ জানা থাকলে নিজেই ঠিক করতে পারবেন, কোন স্পিকারটি আপনার জন্য ভালো। ফ্রিকোয়েন্সি অনুপাতের হিসাবটা সাধারণত হার্টজে দেওয়া থাকে। সংখ্যাটা যত বেশি, স্পিকার তত বেশি শব্দ উৎপন্ন করতে পারে।

সাধারণত ওয়াটে বিদ্যুৎ গ্রহণের হিসাব দেওয়া থাকে। কোন স্পিকার কী পরিমাণ বিদ্যুতে কাজ করে, তা নির্দেশ করে এটি।

সেনিসটিভিটি বা সংবেদনশীলতা প্রতি ওয়াটে ডেসিবলে উল্লেখ করা থাকে। প্রতি ওয়াটে কোন স্পিকার কত বেশি শব্দ করতে পারে, সেটিই নির্দেশ করে এটি।

দেখেশুনে বেশি প্রচলিত ব্র্যান্ডগুলোর স্পিকার কেনা উচিত। বর্তমানে বাজারে মাইক্রোল্যাব, ক্রিয়েটিভ, লজিটেক, অ্যাল্টেক ল্যান্সিং, এফ অ্যান্ড ডি, ডিজিটাল এক্সের স্পিকার ভালো চলছে। কম্পিউটারে ব্যবহারের জন্য চার থেকে ছয় হাজার টাকার মধ্যেই ভালো স্পিকার পাওয়া যায়।

Leave a Reply